মাসুদ সরকার সাহেবের সাথে আমার প্রথম দেখা হয় বাতাকান্দি সরকার সাহেব আলি আবুল হোসেন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের মসজিদ গেইটের সামনে। আমি বাতাকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম বেলায়েত হোসেনের সহধর্মিনী মরহুমা নাজমা বেগমকে এবং কনিষ্ঠ সন্তান পারভেজ হোসেনকে চিনতাম বাকী অন্যান্যদের তখন দেখিনি কাজেই চিনতাম না। মাসুদ সরকার চেহেরা পারভেজ হোসেন সরকার সাথে মিল আছে বিধায় বুঝতে সহজ হয়েছ পারভেজ হোসেনের ভাই। মাসুদ সরকার আমাকে দেখেই সালাম দিলেন এবং জিজ্ঞেস করলেন, আপনি এই স্কুলের শিক্ষক? আমি জি বলে উত্তর দিলাম। তারপর উনি বললেন, আমার আব্বা স্কুল দিয়েছেন এলাকার ছেলে মেয়েদের মানুষ করার জন্য; আপনারা সেই মানুষ গড়ার কারিগড়।

আমরা দেশে থাকি না, কাজেই আপনারা আমার বাবার স্বপ্ন পুরণে কাজ করেন। আব্বা স্যারকে খুব ভালবাসতেন। মাসুদ সাহেবের এই কথার সময় আমাদের বিদ্যালয়ের আব্দুর রহিম ভাই আসলেন এবং মাসুদ সরকারকে স্কুলের অফিসে নিয়ে গেলেন। অফিসে প্রধান আলাউদ্দিন স্যার (সাবেক প্রধান শিক্ষক) আমাকে পরিচয় করিয়ে দিলেন, এই হলো আমাদের পারভেজ চেয়ারম্যানের বড়ভাই মাসুদ সরকার। আমি কিছু বলার আগেই মাসুদ সরকার সাহেব বললেন, উনার সাথে আমার পরিচয় হয়েছে। আমি উনাকে আপ্যায়নের জন্য চেষ্টা করলাম। আব্দুর রহিম ভাই আমাকে সাহায্য করলেন। আলাউদ্দিন স্যার মাসুদ সরকারকে আমাদের দেখিয়ে বললেন, এই শুভর নতুন নিয়োগ হয়েছে। আমাদের খালাম্মার পছন্দের ছেলে। মাসুদ সরকার বললেন,আমি মার মুখে শুভ নামটা শুনেছি। প্রথম পরিচয়ে মাসুদ সরকারকে সহজ ও সরল প্রকৃতির মনে হয়েছে।

প্রথম দেখার কালে ভদ্রে দেখা হত। গ্রামে কম আসতো তাই কম দেখা হয়েছে। মাসুদ সরকার বাতাকান্দি গ্রামের প্রতিও তার ভালবাসা ছিল গভীর। পারভেজ চেয়ারম্যানের নির্বাচনের আগে দেখা হয়েছিল। আমার কাছে হেসে  ভোট চাইল, আমিও হেসে বললাম, ভাইজান আমরা নিরপেক্ষ নির্বাচনের কাজ করি তাই ভোট দিতে পারি না, তবে দোয়া করতে পারি। মাসুদ ভাই বললেন, স্যার দোয়াই আসল। দোয়া করলে আল্লাহ ভোটের ব্যবস্থা করবেন।

মায়া আপার ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠনে আমরা সব শিক্ষক ঢাকায় গিয়েছিলাম। মাসুদ ভাইয়ের সন্তান আমাদের কোলে দিয়ে বললেন, স্যার আমার সন্তানের জন্য দোয়া করবেন। তখন মাসুদ ভাইকে খুবই আনন্দিত অবস্থায় দেখেছি। আমাদের সকল শিক্ষককে আনন্দের সহিত তার ছোট সন্তানকে দেখালেন এবং দোয়া চাইলেন। আজ (১০/০৪/২০২০) যখন মো. মামুন স্যারের ফেসবুক স্ট্যাটাসে জানতে পারলাম যে,মাসুদ সরকার আজ ভোর চারটায় (গতকাল রাত) ইন্তেকাল করেছে; আমার মনের চোখে মাসুদ সরকারের আনন্দ মাখা মুখটা বার বার ভেসে উঠে।

Comments are closed.