কুমার রনজিৎ সুব্রত, সহকারি শিক্ষক, মোহাম্মদপুর উচ্চ বিদ্যালয়, জগতবেড়, পাটগ্রাম, লালমনিরহাট । অনেকের মতো তাঁর স্বপ্ন বেশি বড় ছিলনা । তবে স্বপ্ন পূরণের ইচ্ছা ছিল অদম্য । তিনি স্বপ্ন পূরনের লক্ষ্যে মনোযোগ দিয়ে পড়াশুনা চালিয়ে যেতে থাকেন । ১৯৯৪ সালে এস,এস,সি পরীক্ষা দিয়ে মোট ৭২৯ নম্বর এবং উচ্চতর গণিত ও বিজ্ঞান বিষয়ে লেটার মার্কসহ তিনি প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হন । এরপর ১৯৯৬ সালে এইচ,এস,সি এবং ১৯৯৯ সালে বি,এস-সি পরীক্ষায় ২য় বিভাগে উত্তীর্ন  হওয়ার পর ২০০২ সালে তিনি সহকারি শিক্ষক হিসাবে বিদ্যালয়ে যোগদান করেন । অতপর বিদ্যালয়ের যাবতীয় কর্মকান্ডে জড়িত থেকে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করতে থাকেন । তার জীবনের প্রতিটি স্বপ্ন পূরন হয়েছে । কারণ তিনি ছিলেন কর্মে বিশ্বাসী । তিনি স্বপ্ন দেখেন এবং সে অনুযায়ী কঠোর পরিশ্রম করেন । শিক্ষকতা জীবনে তিনি সর্বদা চেষ্টা করতেন কিভাবে একজন শিক্ষার্থীকে মানুষের মতো মানুষ করে তোলা যায় ।

তিনি সর্বদাই ভাবতেন কিভাবে একজন শিক্ষার্থীর শিখনফল স্থায়ী করা যায় বা চিন্তন দক্ষতার বৃদ্ধি ঘটানো যায় । এরপর একদিন মাল্টিমিডিয়া ক্লাশের ব্যাপারে তিনি জানতে পারেন । শিক্ষকদের জন্য “শিক্ষক বাতায়ন” নামে একটি সাইট আছে এবং সম্মানিত শিক্ষকবৃন্দ কনটেন্ট তৈরি করে উক্ত সাইটে আপলোড করতে পারেন । তিনি তখনো আইসিটির বিষয়গুলো ভালো বুঝতেন না । এরপর তিনি বিদ্যালয়ের হেডস্যারের নিকট আইসিটি প্রশিক্ষণ গ্রহণের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেন । তার কিছুদিন পরে হেডস্যার প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে দেন । রংপুর টিটিসিতে ১৪ দিনের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন । প্রশিক্ষণ চলাকালীন কিভাবে জিমেইল আইডি খুলতে হয় তা তিনি ভালোভাবে শিখলেন এবং উক্ত মেইল আইডি দিয়ে বাতায়নের সদস্য হলেন । কিভাবে ডিজিটাল কনটেন্ট তৈরি করতে হয় সেটিও প্রশিক্ষণে ভালো করে শিখে ফেললেন । অনেক স্বপ্ন নিয়ে প্রশিক্ষণ থেকে ফিরে এসে তিনি  নিয়মিত কনটেন্ট তৈরি করতে থাকেন এবং ক্লাশে উপস্থাপন করেন । মাল্টিমিডিয়া ক্লাশে শিক্ষার্থীরা খুব উপভোগ করতো । এতে করে তিনিও কম আনন্দ পেতেন না । এতে করে পাঠদান যথেষ্ট ফলপ্রসু হতো । কালক্রমে শিক্ষক বাতায়নে কনটেন্ট আপলোড করে, সপ্তাহের সেরা কনটেন্ট নির্মাতা  নির্বাচিত হওয়া যায় তা তিনি জানতে পারেন । ফলে তিনি বাতায়নে নিয়মিত কনটেন্ট আপলোড করতে থাকেন । আপলোডকৃত কনটেন্টের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পেতে থাকে এবং অবশেষে অনেক কষ্টের পর ৭৬তম কনটেন্টে ০৫/১০/১৭ তারিখে তিনি সপ্তাহের সেরা কনটেন্ট নির্মাতা হিসাবে নির্বাচিত হন। ফলে তার কনটেন্ট তৈরি করার অদম্য মানসিকতা এবং প্রবল আগ্রহ আরো সহস্র গুণে বৃদ্ধি পায় । তার বাতায়নে আপলোডকৃত কনটেন্টের সংখ্যা ৮৩টি এবং এ পর্যন্ত ইউটিউবে আপলোডকৃত ভিডিও ৮৮টি ।

এছাড়াও তিনি মুক্তপাঠে ২৬টি সার্টিফিকেটসহ ৮ লক্ষ পয়েন্ট এবং মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ ইডুকেটর এ ৪০টি সার্টিফিকেট, ৬০টি ব্যাজ সহ ৭ লক্ষ ৪০ হাজার ৮ শত পয়েন্ট অর্জন করেন । ফলশ্রুতিতে ১৭-০২-১৮ তারিখে এটুআই তাকে আইসিটি ফর ই জেলা এম্বাসেডর হিসাবে নির্বাচিত করেন । এটা তার জীবনের আর একটি বড় সফলতা । এরপর থেকে তিনি জেলা এম্বাসেডর হিসাবে কাজ করতে থাকেন ।

২০১৮ সালে তিনি বৃটিশ কাউন্সিলের প্রজেক্টের কাজ শুরু করেন । কাজগুলো প্রথম দিকে বেশী ভালো বুঝতেন না । এ ব্যাপারে জনাব, মোঃ খুরশীদুজ্জামান আহমেদ, প্রধান শিক্ষক, কালীগঞ্জ করিম উদ্দিন পাবলিক পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, কালীগঞ্জ, লালমনিরহাট এবং বৃটিশ কাউন্সিল এম্বাসেডর তাকে যথেষ্ট অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন । তিনি  ২০১৮ সালে সর্বমোট ৮টি প্রজেক্টের কাজ সাবমিট করেন কিন্তু দুর্ভাগ্য বশতঃ ইন্টারমেডিয়েট অ্যাওয়ার্ড পান । ২০১৯ সালের জন্য আবারো যথারীতি প্রস্তুতি নেন এবং  সৃষ্টিকর্তার কৃপায় ফুল অ্যাওয়ার্ড অর্জনে সক্ষম হন । এর ফলে ০৮-১১-১৯ ইং তারিখ ঢাকায় ব্লু ওয়াটার রেডিসন হোটেলে ইন্টারন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড গ্রহন করেন ।

তিনি সফলতা পর্যায়ক্রমে পেতেই থাকেন । আর সফলতা প্রতিটি মানুষের জীবনে কর্ম স্পৃহা বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে । প্রতিটি মানুষকে করে গৌরবান্বিত । তিনি চেষ্টা চালিয়ে যেতে থাকেন কিভাবে আরো ভালো করা যায় । উপকরণের মাধ্যমে পাঠদানে তিনি খুবই সাচ্ছন্দ্যবোধ করেন । ফলে তিনি নিয়মিত বাস্তব উপকরণের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করতেন। এতে শিক্ষার্থীরা পাঠের প্রতি খুবই মনোযোগী হয় । তিনি প্রায় সময়ই এ সকল ক্লাশ ভিডিও ধারণ করে চ্যানেলে আপলোড করতেন ।

ইতিমধ্যে শিক্ষক বাতায়নে আবার নতুন মাত্রা যুক্ত হলো । সেরা নেতৃত্ব এবং সেরা উদ্ভাবক ক্যাটাগরি যুক্ত হলো । ফলে শিক্ষক বাতায়ন আরো একধাপ এগিয়ে গেল । সম্মানিত শিক্ষকবৃন্দ তাদের উদ্ভাবনী গল্প বাতায়নে আপলোড করতে লাগলেন । তিনিও তার উদ্ভাবনী গল্প আপলোড করতে থাকেন এবং এ পর্যন্ত তিনি বাতায়নে অনেক উদ্ভাবনী ভিডিও আপলোড করেছেন । ফলশ্রুতিতে তিনি ০১-১১-১৯ তারিখ নতুন ক্যাটাগরি সেরা উদ্ভাবকে ২য় সেরা উদ্ভাবক হিসাবে নির্বাচিত হন । এটি তার জীবনে সবচেয়ে বড় একটি অর্জন । তার মতো এরকম সকল মানুষের জীবনে সফলতা আসুক আমি এটাই প্রত্যাশা করি ।

2 Comments

Shahzaman ShuvohFebruary 24, 2020 at 7:45 am

Thanks Sir

 

Shahzaman ShuvohFebruary 24, 2020 at 7:45 am

Great content! Super high-quality! Keep it up! 🙂

 

Advertisement Area

This is area for advertisement.

Subscribe

Get new posts by email:

রাঙ্গামাটির ঝুলন্ত ব্রিজ থেকে….

Site Statistics

  • Users online: 0 
  • Visitors today : 8
  • Page views today : 16
  • Total visitors : 5,009
  • Total page view: 7,972