রায়হানা হক ম্যামের সাথে আমার প্রথম ফোনালাপ হয় প্রায় তিন বছর আগে। ম্যামের মাইক্রোসফট এডুকেশনের প্রবল আগ্রহ দেখে শামসুদ্দিন আহমেদ তালুকদার স্যার আমাকে ফোনে বলেদেন রায়হানাকে সহায়তা করতে। তারপর তেমন যোগাযোগ হয়নি। বছর খানেক পর আমি আবিস্কার করলাম এডুকেশন মাইক্রোসফটেয়ামার চেয়ে অনেক পয়েট বেশি একজন বাংলাদেশী মহিলাশিক্ষক। আমি তখন অনেক সময় দিতাম একুকেশন মাইক্রোসফটে এবং আমার পয়েন্ট প্রায় বাইশ লাখের উপর ছিল। কাজেই আমি রায়হানা হকের খোঁজ করলাম এবং ফউজিয়া বাবলির নিকট রাহহানা হকের মোবাইল নাম্বার পেলাম। আমি মোবাইলে কল করার পর পেলাম এবং কুশল বিনিময়ের পর পরিচয় হল যে একবছর আগেই আমাদের পরিচয় হয়েছে। আমি তখন স্বগর্বে বললাম ম্যাম তখন আপনি আমার কাছে মাইক্রোসফট জানতে ফোন দিয়েছিলেন আর এখন আমি আপনাকে ফোন দিয়েছে মাইক্রোসফটের ব্যাপারে জানতে।  

ম্যাম শিখতে ও শিখাটে খূব আগ্রহী তাই আমার সাথে যোগাযোগ আছে। আমার সাথে বাস্তবিক দেখা হয় ম্যা্মের আই এস এ এওয়ার্ড গ্রাহণ করার অনুষ্ঠানে আমিও ছিলাম। বৃটিশ কাউন্সিলের এম্বাসডর হবার সুবাদে ম্যামের সাথে প্রায় যোগাযোগ হয়।

 

নানামূখী প্রতিভার অধিকারী আমার অত্যন্ত প্রিয় শিক্ষক জনাব রায়হানা হক এ বছর জাতীয়ভাবে মাল্টিমিডিয়া ডিজিটাল কন্টেন্ট প্রতিযোগিতায় টপ ফিফটিন এ স্থান করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন । রায়হানা হক SDG নিয়ে কাজ করছেন দীর্ঘদিন ধরে যা আমরা অনলাইনে প্রতিনিয়ত প্রত্যক্ষ করে আসছি । এ কাজের আন্তর্জাতিক স্বীকৃত ফেলেন TeachSDGs এর Ambassador নির্বাচিত হয়ে ।

 

বাংলাদেশে প্রাথমিক বিদ্যালয় এ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারে সেরা কয়েকজন শিক্ষকের মধ্যে অন্যতম সেরা ডিজিটাল আইকন শিক্ষক কিশোরগঞ্জ এর ভৈরবের বাঁশবাড়ী ১ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এর প্রধান শিক্ষক জনাব রায়হানা হক।ভৈরব শহর থেকে অনেক দূরে অত্যন্ত দরিদ্র এলাকার মফসল স্কুলে তিনি শিক্ষকতা করেন। সেখানেতিনি থেমে নেই । নিজ বিদ্যালয় এ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদেরকে পরিচিত করে ফেলেছেন বিশ্বের অনেক গুলো দেশের সাথে । পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের সাথে স্কাইপ এর মাধ্যমে নিজ বিদ্যায়ল এর শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম বিষয়ে শেয়ার করার সুযোগ করে দিচ্ছেন তিনি । এ তে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন দেশের শিক্ষা গ্রহণ পদ্ধতি জানতে পারছে । যা বাংলাদেশে আর কোন শিক্ষক করেন কিনা আমার জানা নেই ।সর্বোপরি তিনি অনলাইনে ইংরেজী বিষয়ের টর্ট ট্রেইনার। পৃথিবীর ৩০ টি দেশের সাথে তিনি স্কাইপে ক্লাস নিয়ে থাকেন।

জনাব রায়হানা হক Microsoft বিভিন্ন শিক্ষকমূলক কার্যক্রমে সক্রিয় ভাবে কাজ করেন । Microsoft এর একটি অংশ TweetMeet যা SDG relevant কাজ করে থাকে যা কানাডা থেকে পরিচালিত হয় । অত্যন্ত আনন্দের খবর হলো গত ১৬ অক্টোবর “ বাংলা ভাষা “ প্রথম TweetMeet এ কেন্দ্রীয় স্থান পেয়েছে যার Host এর দায়িত্ব পেয়েছেন রাইহানা হক।আবার রাইহানা হক এশিয়া মহাদেশ থেকে Moderator হিসেবে TweetMeetEdAshia দায়িত্ব পালন করছেন । গত বছর Microsoft থেকে Algorithm thinking এ lesson plan তৈরি করে first হয়েছেন M. Raihana Haque যা আমাদের দেশের জন্য অত্যন্ত গৌরবের বিষয়।
গতবছর কক্সবাজারে শিক্ষক সম্মেলন এ SDG বিষয়ক সেমিনারে রায়হানা হক আলোচক হিসেবে অংশ গ্রহণ করেন।

কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ভৈরব উপজেলা এবং কিশোরগঞ্জ জেলায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন ।
তিনি বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেছেন । তন্মধ্যে জাপানে এক মাসের প্রশিক্ষণ নিয়েছেন । থাইল্যান্ড ছাড়াও এ বছর ভারতের নয়াদিল্লীতে ৭ দিনের জন্য exchange visit করেন। তাছাড়া এ বছর মার্চ মাসে তিনি সিঙ্গাপুরে ৭ দিনের Microsoft এর E2 প্রোগ্রামে অংশ গ্রহণ করেন যেখানে পৃথিবীর ৯২ টি দেশের প্রতিনিধিগণ অংশ গ্রহণ করেন ।

রায়হানা হক আমাদের শিক্ষা পরিবারের গর্ব। ধন্যবাদ জানাচ্ছি a2i কে এ জন্য যে সারাদেশ এ রা্য়হানা হকদের মত শিক্ষক তৈরী করে শিক্ষায় তথ্য প্রযুক্তি বাস্তবায়ন করে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণ এর পথ সহজ করার জন্য।পাশাপাশি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে কাজ করে স্বীকৃতি পাওয়ার মত শিক্ষক তৈরী করার জন্য। আমার ধীর বিশ্বাস রায়হানা হক TeachSDGs এর Ambassador হিসেবে দায়িত্ব পালন করে নিজেকে আরো উচ্চ মাত্রায় নিতে তিনি সক্ষম হবেন সেটাই প্রত্যাশা ।আশা করি শতভাগ সফল হবেন

প্রাথমিক শিক্ষা তথা শিক্ষা পরিবারের অহংকার বাংলাদেশের সেরা ডিজিটাল আইকন লেডি শিক্ষক ভৈরব এর রায়হানা হক TeachSDGs ( Sustainable Development Goals ) এর Ambassador নির্বাচিত হওয়ায় তাঁকে আন্তরিক অভিনন্দন এবং শুভেচ্ছা জানাচ্ছি । কোন শিক্ষকের TeachSDGs এর Ambassador হওয়া অত্যন্ত গৌরব এর বিষয় ।

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (SDGs) হলো ভবিষ্যত আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংক্রান্ত একগুচ্ছ লক্ষ্যমাত্রা। জাতিসংঘ লক্ষ্যগুলো প্রণয়ন করেছে এবং “টেকসই উন্নয়নের জন্য বৈশ্বিক লক্ষ্যমাত্রা” হিসেবে লক্ষ্যগুলোকে প্রচার করেছে।২০১৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক UN Sustainable Development Summit এ বিভিন্ন দেশের সরকার প্রধানদের আলোচনার মধ্যমে এ লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। সম্মেলনের বিষয়বস্তু Transforming our world: the 2030 Agenda for Sustainable Development ।জাতিসংগের ১৯০ টি দেশ টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (SDGs) স্থির করেছে ।

 

Comments are closed.